মেঘালয়: তথ্য-অধিকার কর্মী অ্যাগনেস খারসিং আক্রান্ত, মাথায় গুরুতর আঘাত, অবস্থা সঙ্কটজনক


  • November 8, 2018
  • (0 Comments)
  • 162 Views

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ সিভিল সোসাইটি উইমেনস অর্গানাইজেশন (সিএসডব্লিউও)র প্রেসিডেন্ট  অ্যাগনেস খারসিং এবং তাঁর সঙ্গী এ সাংমা পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ের টুবের সোহস্রিতে আক্রান্ত হন। এই নিয়ে এ বছর তিন জন সমাজকর্মী পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ে আক্রান্ত হলেন। গত মার্চ মাসে জয়ন্তিয়া ইউথ ফেডারেশন (জেওয়াইএফ) -এর প্রেসিডেন্ট পি মাজাওকে সিমেন্ট মাফিয়ারা খুন করে। পরিবেশের নিয়মকানুন অমান্য করে চালিয়ে যাওয়া সিমেন্ট কারখানা বন্ধ করার জন্য এই যুব নেতা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলেন। লিখছেন দেবাশিস আইচ।

 

জয়ন্তিয়া পাহাড়ে ফের দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হলেন সমাজ ও তথ্য-অধিকার কর্মী। পুলিশের সন্দেহ, এই আক্রমণের পিছনে রয়েছে জয়ন্তিয়ার কয়লা মাফিয়ারা। বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ সিভিল সোসাইটি উইমেনস অর্গানাইজেশন (সিএসডব্লিউও)’র প্রেসিডেন্ট  অ্যাগনেস খারসিং এবং তাঁর সঙ্গী এ সাংমা পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ের টুবের সোহস্রিতে আক্রান্ত হন। খারসিংয়ের মাথায় গুরুতর চোট লেগেছে। পুলিশের অনুমান ভারী কিছু অস্ত্র দিয়ে তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়েছে।  তাঁকে প্রথমে লালং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, পরবর্তীতে শিলংয়ের নেইগ্রিহমস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

 

গত ৭ নভেম্বর তিনি শিলংয়ের মাওইয়ং রিমে কয়েকটি কয়লা বোঝাই ট্রাক দেখতে পেয়ে অভিযোগ জানিয়ে ছিলেন। পুলিশ এই অভিযোগের ভিত্তিতে সেগুলিকে আটক করে। মেঘালয়ে বেআইনি কয়লা খাদান বন্ধ করতে ইতিমধ্যেই ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনালস (এনজিটি) আদেশ জারি করেছে। সেই আদেশ অমান্য করে কয়লা তোলা চলছিল। এর আগেও তিনি খাসি ও জয়ন্তিয়া পাহাড়ে পরিবেশ আইন অমান্য করে বেআইনি ভাবে কয়লা তোলা এবং মাফিয়াদের যথেচ্ছাচারের বিরুদ্ধে সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছেন।

 

পুলিশ জানিয়েছে, সমাজ কর্মী খারসিং টুবারে মাওইয়ং রিমের ঘটনায় কী পদক্ষেপ করা হয়েছে সে বিষয়েই খোঁজ নিতে গিয়েছিলেন। রাস্তায় তাঁদের গাড়ি থেকে নামিয়ে পাশ্ববর্তী জঙ্গলে নিয়ে যাওয়া হয়। আততায়ীরা পালিয়ে গেলে সাংমা কোনওক্রমে হামাগুড়ি দিয়ে রাস্তায় উঠে এসে সাহায্য চান। এর পর খারসিংকে অচৈতন্য অবস্থায় জঙ্গলের মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হয়। গাড়ির চালক অক্ষত অবস্থায় গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়।

 

একটি সূত্রের মতে, টুবেরের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার আগের মুহূর্তে এক ব্যক্তি শিলংয়ের লাইটুমখ্রাতে খারসিংয়ের বাড়িতে এসেছিলেন। সেই ব্যক্তি তাঁকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য অর্থও দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু, খারসিং তাঁকে অগ্রাহ্য করেই টুবেরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন।

 

এই নিয়ে এ বছর তিন জন সমাজকর্মী পূর্ব জয়ন্তিয়া পাহাড়ে আক্রান্ত হলেন। গত মার্চ মাসে জয়ন্তিয়া ইউথ ফেডারেশন (জেওয়াইএফ) -এর প্রেসিডেন্ট পি মাজাওকে সিমেন্ট মাফিয়ারা খুন করে। পরিবেশের নিয়মকানুন অমান্য করে চালিয়ে যাওয়া সিমেন্ট কারখানা বন্ধ করার জন্য এই যুব নেতা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলেন।

 

লেখক একজন স্বতন্ত্র সাংবাদিক ও সামাজিক কর্মী। ছবিগুলি  বিভিন্ন রিপোর্টে  বিনা সুত্রে  ব্যবহৃত হয়েছে, সঠিক সুত্র আমাদের পক্ষে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। 

Share this
Leave a Comment